দুইবার করোনা নেগেটিভ আসলেও তৃতীয়বার পজিটিভ!

করোনা টেস্ট করতে হবে একাধিকবার!

করোনা ভাইরাস, গোটা বিশ্বে এখন এই এক নামেই আতঙ্কিত সবাই। করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সবাই চাইছেন, করোনার কোনও লক্ষণ দেখা গেলেই যথাসম্ভব তাড়াতাড়ি পরীক্ষাটা করে নিতে। কিন্তু তাতেও কি কাজ হচ্ছে! অনেক বিশেষজ্ঞ বলছেন, সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে করোনাও তার স্বভাব বদলাচ্ছে।

হ্যা। ভারতে সম্প্রতি যে ঘটনা ঘটেছে তারপরতো এমনটাই ভাবতে বাধ্য হচ্ছেন অনেকেই।
ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের গৌতম বৌদ্ধ নগর জেলার অন্তর্ভুক্ত নয়ডা এলাকার।

সম্প্রতি করোনা আক্রান্ত সন্দেহে দুই ব্যক্তিকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নিয়মমাফিক করোনা ভাইরাসে তারা আদৌ আক্রান্ত কিনা জানতে পরীক্ষা করাও হয়, একবার নয়, দুই দুইবার। দুইবারই পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসে। আশ্বস্ত হয়ে ওই দুই ব্যক্তিকে হাসপাতাল থেকে ছেড়েও দেওয়া হয়।

কিন্তু তারপরও সুস্থ বোধ না করায় আরও একবার করোনা টেস্ট করান ওই দুই ব্যক্তি। সবাইকে হতবাক করে দিয়ে তৃতীয়বারের পরীক্ষার ফলাফলে করোনা পজিটিভ আসে তাদের! খুব দ্রুতই ওই দুই ব্যক্তিকে আবারো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

আর এই ঘটনাতেই চিন্তার ভাঁজ পড়েছে চিকিৎসকদের কপালে।

কেননা এরকম হতে থাকলেতো এবার করোনা আক্রান্ত সন্দেহে একজন ব্যক্তির একাধিকবার করোনা টেস্ট করাতে হবে, তা একদিকে যেমন সময়সাপেক্ষ অন্যদিকে তেমনি ব্যয়সাপেক্ষও বটে।

কেন এমন ঘটছে, তবে কী করোনা ভাইরাস নিজেরাই এবার আক্রমণের ধরণ বদলাচ্ছে? এ নিয়ে বিচার-বিশ্লেষণ করতে এখন ব্যস্ত চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা। তারা জানিয়েছেন, গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখে কেন্দ্রের কাছে একটি বিস্তারিত রিপোর্ট পাঠানো হবে।

এদিকে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ভারতে এখন পর্যন্ত করোনা প্রাণ কেড়েছে ৩০৮ জনের। আর গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনার শিকার হয়েছেন ৩৫ জন। সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে ভারতে মোট ৯,১৫২ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত।
একদিকে লকডাউন, অন্যদিকে লাগাতার করোনা আক্রান্তের সংখ্যাবৃদ্ধি। গভীর সঙ্কটে পড়েছে গোটা ভারত।

এনডিটিভি অবলম্বনে