ছাগল চুরি মামলায় সেই ছাত্রলীগ নেতাসহ ৫ জন কারাগারে

মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি তুহিন দর্জী

মাদারীপুরে ব্যক্তিগত গাড়িতে (প্রাইভেট কার) করে ছাগল চুরির ঘটনায় জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি তুহিন দর্জীসহ পাঁচজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আজ শুক্রবার বেলা ৩টার দিকে জেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে হাজির করা হলে বিচারক সাইদুর রহমান তাঁদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মাদারীপুর আদালতের পুলিশ পরিদর্শক রমেশ চন্দ্র দাশ প্রথম আলোকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে সদর উপজেলার পখিরা এলাকা থেকে একটি ব্যক্তিগত গাড়িতে ছাগল চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় হাতেনাতে তুহিন দর্জীসহ পাঁচজনকে আটক করে পুলিশ। পরে তাঁদের নামে সদর মডেল থানায় ছাগল চুরির অভিযোগ এনে লোকমান মালোত নামে এক কৃষক মামলা করেন। এই মামলায় তুহিন দর্জী, তাঁর সহযোগী জুবায়ের হাওলাদার, রানা ব্যাপারী, রবিউল ইসলাম ও মাহবুব তালুকদারকে আসামি করা হয়।

তুহিন দর্জী জেলা ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ও সদর ঘটমাঝি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জাকির দর্জীর ছেলে। তাঁদের বাড়ি শহরের ইটেরপুল এলাকায়।

মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার বেলা ২টার দিকে সদর উপজেলার পখিরা এলাকা থেকে ব্যক্তিগত গাড়িতে করে স্থানীয় লোকমান মালোতের একটি ছাগল চুরি করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। বিষয়টি স্থানীয় লোকজন দেখতে পেয়ে ধাওয়া দিলে তাঁরা সেখান থেকে দ্রুত সটকে পড়েন। বিষয়টি টইল পুলিশকে জানানো হলে পুলিশ চুরি হওয়া ছাগল বহন করা প্রাইভেট কারটির গতিরোধ করে। পরে ছাত্রলীগ নেতা তুহিন দর্জীসহ তাঁর চার সহযোগীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ সময় চুরির কাজে ব্যবহৃত ওই প্রাইভেট কার জব্দ ও ছাগল উদ্ধার করা হয়।

সুত্র- প্রথম আলো

https://www.prothomalo.com/bangladesh/district/%E0%A6%9B%E0%A6%BE%E0%A6%97%E0%A6%B2-%E0%A6%9A%E0%A7%81%E0%A6%B0%E0%A6%BF-%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A7%9F-%E0%A6%B8%E0%A7%87%E0%A6%87-%E0%A6%9B%E0%A6%BE%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%B2%E0%A7%80%E0%A6%97-%E0%A6%A8%E0%A7%87%E0%A6%A4%E0%A6%BE%E0%A6%B8%E0%A6%B9-%E0%A7%AB-%E0%A6%9C%E0%A6%A8-%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%97%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A7%87

পূর্বের খবরকরোনায় মৃতের সংখ্যা ২৩ লাখ ছুঁই ছুঁই
পরবর্তি খবরছাত্রলীগের নির্যাতন থেকে বাঁচতে গ্রামে চলে গেলেন ঢাকা মেডিকেল শিক্ষার্থী